এস ই ও - সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেন
অাপনার অনলাইন আয়ের সমাধান।
সাম্প্রতিক পোষ্ট
GMT+6 04:26

এস ই ও

Content Protection by DMCA.com

আমার খুব ভাল লাগছে যে বাংলা ভাষায় এস ই ও এর বাংলা কন্টেন্ট দিন দিন উন্নতি হচ্ছে। আজকে আপনাদের কিছু এস ই ও ট্যাকনিকাল শব্দের সাথে পরিচয় করিয়ে দিব। এখানে যে সকল লেখা আছে তা আমি কিছুটা নিজে থেকে দিছি আবার কিছু বিভিন্ন বাংলা ব্লগ থেকে সংগ্রহ করেছি। যারা বাংলায় ব্লগ লিখেছেন তাদের সকলকেই উৎসর্গ করা হল।

পেইজ রেংক

যে কোন ওয়েবসাইটের পেইজ রেংক চেক করতে পেইজ রেংক ক্লিক করুন। আর  এই পেইজরেংক আপডেট কিভাবে কাজ করে তা দেখার জন্য ইউটিউব ভিডিও দেখুন।

যার মাধ্যমে গুগল কোন একটি ওয়েব সাইট এর প্রতিটি পেজ এর গুরুত্ব পরিমাপ করে থাকে তাই হচ্ছে পেজ র‌্যাঙ্ক। গুগল সার্চ ইঞ্জিন এ আমরা যখন সার্চ করি তখন সেখানে জেই সার্চ রেজাল্ট দেখতে পারি তার অনেকটাও এই পেজ র‌্যাঙ্ক এর উপর এবং কিছু অন্যান্য বিষয় এর উপর নির্ভর করে থাকে । পেজ র‌্যাঙ্ক এর উদ্ভাবন করেন গুগল এর জনক ল্যারি পেজ এবং সারজে ব্রিন । এই পেজ র‌্যাঙ্ক বেশ কিছু বিষয়ের উপর নির্ভর করে থাকে যার মধ্যে ব্যাকলিঙ্ক , কি ওয়ার্ড ডেনসিটি এমনি কিছু অন্য বিষয় এর উপর । গুগুল ধরে নেয় যে যখন একটি সাইট অপর একটি সাইটের লিঙ্ক নিজের মধ্যে স্থাপন করে তখন সেটি প্রকৃতপক্ষে অপর সাইটিকে একটি ভোট দিল। তাই আপনার সাইটের জন্য যত বেশি ভোট থাকবে তত বেশি সেটির গুরুত্ব গুগুলে কাছে বৃদ্ধি পাবে। এছাড়াও গুগুল অন্যান্য যেসব সাইট আপনার সাইটটিকে লিঙ্ক করে থাকে তাদের নিজস্ব প্রাপ্ত ভোটকেও গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তাই অন্যান্য সাইট যেগুলো আপনার সাইটটিকে লিঙ্ক করেছে বা ভোট দিয়েছে তাদের নিজের প্রাপ্ত ভোট যদি বেশি হয়, তবে গুগুলের দৃষ্টিতে আপনার সাইটের গুরুত্ব ততই বৃদ্ধি পাবে এবং আপনার পেজ র‌্যাঙ্ক বৃদ্ধি পাবে । এখানে একটা বিষয় আপনি যে সাইট থেকে ভোট পেলেন অব্যশই সেই সাথে ভাল পেইজ রেংক থাকতে হবে। আপনি যত ভাল পেইজ রেংক সাইট থেকে লিংক পাবেন আপনার পেইজ রেংক এর জন্য ততই ভাল। আরও গুগুল প্রতি ৩ মাস পর পেইজ রেংক আপড়েট করে।

এনকর টেক্সট

এনকর টেক্সট হচ্ছে একটা ক্লিকযোগ্য টেক্সট যেটা ইউজার দেখে। এবং এই এনকর টেক্সট প্রধানত এইচটিএমএল বা এক্সএইচটিএম এল ব্যাবহার করে করা হয়ে থাকে । এখানে ইউজার ক্লিক করে একটা নতুন পেজে যেতে পারে।এটা এনকর ট্যাগের মধ্যে থাকে <a href=”/…”>এনকর টেক্সট</a> । এস ই ও তে এই এনকর টেক্সট অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় ।এটি সার্চ ইঞ্জিন এর জন্য অন্যতম একটি প্রয়োজনীয় বিষয় । আমরা সাধারনত কোন ওয়েব সাইট এ গেলে দেখতে পাই যে লিখা আছে “CLICK HERE” বা “READ MORE” ওগুলো ও একধরনের এনকর টেক্সট । এই এনকর টেক্সট ব্যাবহার করে আপনি আপনার কোন লিখার মধ্যে পূর্বের কোন লিখা যা বর্তমানে আপনি জেই বিষয়ে লিখছেন তার সাথে সম্পর্কিত বা এমন কোন লিখা বা ওয়েব সাইট এর ঠিকানা যা এই লিখার পড়ার সময় দরকার হবে তা লিঙ্ক করে দেয়া কে বুজায় ।

ব্যাকলিংকস

ব্যাকলিংকস হল আপনার সাইটের একটি লিংক যা অন্য কোন সাইটে প্রকাশ করা হবে অর্থাৎ অন্য সাইটে প্রকাশিত আপনার লিংককেই ব্যাকলিংক বলা হয়। ধরুন ওয়েব সাইটের ঠিকানা আপনি ফেইসবুকে শেয়ার করলেন তাহলে আমি একটি ব্যাকলিংক পেলাম।ব্যাকলিংক হচ্ছে একটি ওয়েব সাইটের পেজ র‌্যাঙ্ক বাড়ানোর মূল হাতিয়ার।

<a href=”http://www.outsourcingbdjobs.com/” target=”_blank”>Google Website</a>

ব্যাকলিংক তো বুঝতে পারলেন এবার চলুন দেখে নেই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক কি ?

কোয়ালিটি ব্যাকলিংক হচ্ছে একটি সম্পর্কিত ব্যাকলিংক অর্থাৎ আপনি যদি স্বাস্থ্য সম্পর্কে ব্লগ তৈরি করে থাকেন তবে স্বাস্থ্য রিলেটেড অন্য যে কোন সাইট থেকে আপনার সাইট লিংক পেলেই  লিঙ্ককেই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক বলা যায়।  সাধারন  ১০০ টি ব্যাকলিংক যে পরিমান কাজ করবে ১ টি কোয়ালিটি ব্যাকলিংক সেই পরিমান কাজ করে থাকে ।

না বুঝে যেন ব্যাকলিংক বাড়ানোর দিকি নজল না দিয়ে কোয়ালিটি ব্যাকলিংক তৈরির দিকে মনোযোগ দিন ।

প্রকারভেদের দিক থেকে ব্যাকলিংক সাধারণত দুই প্রকার । নিম্নে দেওয়া হল-
• ১, ডু-ফলো ব্যাকলিংক

• ২ নো-ফলো ব্যাকলিংক

আর  ডফলো এবং নো ফলো  চেক করার জন্য এড অন ব্যবহার দেখতে এই দেখুন ডফলো এবং নো ফলো
ডুফলো ব্যাকলিংক কি?

ডুফলো ব্যাকলিংক হচ্ছে একটি সাধারন এইচটিএমএল লিংক। যার মাধ্যমে লিংকটি সরাসরি আপনার সাইটকে রেফার করবে এবং ব্লগ বা পোস্ট এই লিংকটিকে সমর্থন দেবে। ডুফলো ব্যাকলিংক হচ্ছে সবচেয়ে শক্তিশালী লিংক। আপনি কি ধরনের ব্লগের কাজ থেকে ডুফলো ব্যাকলিংক পাচ্ছেন তার উপরে নির্ভর করে আপনি কি ধরনের রেঙ্ক পাবেন।

উদাহরণস্বরূপ, আমি একটি সাধারন এইচটিএমএল সোর্স কোডের লিংকের মাধ্যমে একটি সাইটের ডুফলো ব্যাকলিংক উপস্থাপন করছি।

<a href=”http://www.google.com/” target=”_blank” rel=”dofollow”>Google Website</a>

নো-ফলো ব্যাকলিংক কি?

নো-ফলো ব্যাকলিংক হচ্ছে এমন একধরনের লিংক যার মাধ্যমে ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিনকে তার প্রকাশিত ব্যাকলিংক কে ক্রাওল/ ইন্ডেক্স করতে নিষেধ করে ।। তবে এর মাধ্যমে কিছু ভিজিটর পেতে পারেন। বিশ্বের জনপ্রিয় সাইটগুলো নোফলো ব্যাকলিংক ব্যাবহার করে থাকে যেমন ফেসবুক, টুইটার, উইকিপিডিয়া ইত্যাদি। নোফলো ব্যাকলিংক এর সাথে rel=”nofollow” কোডটি যুক্ত থাকে যা সার্চ ইঞ্জিনকে ইন্ডেক্স করতে বাঁধা দেয়।

উদাহরণস্বরূপ, আমি একটি সাধারন এইচটিএমএল সোর্স কোডের লিংকের মাধ্যমে একটি সাইটের নোফলো ব্যাকলিংক উপস্থাপন করছি।

<a href=”http://www.google.com/” target=”_blank” rel=”nofollow”>Google Website</a>

আর ডুফলো সাইটের জন্য ব্লগ এর কি ভূমিকা এই ভিডিওটে দেখুন।

Content Protection by DMCA.com