অনলাইন আয়ের ব্লগ

Freelancing ক্যারিয়ার গাইডলাইন

আপনি যদি Freelancing ক্যারিয়ার গঠন করতে আগ্রহী হন, তাহলে আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে।

1. প্রথমে আপনাকে ঠিক করতে হবে যে, ওয়েবের বিশাল জগতে আপনার পছন্দের Part কোন টি? (Graphics Design, Web Design, Web Developing, SEO, E-mail Marketing , WordPress etc.)

2. এবার পছন্দের বিষয়ে Learning করতে থাকুন ।( “Learning before earning” আপনি যদি কিছুই বা না জানেন তাহলে কিভাবে কাজ করবেন?) বিভিন্ন সাইট এবং ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখুন। কোথাও আটকে গেলে গুগল.com ।

3. ৩ থেকে ৪ মাস আপনার পছন্দের বিষয়ে এক টানা কাজ করুন। “মনে রাখবেন আজকে না হলে আগামি দিন হবে ইনশাআল্লাহ”

4. পাশাপাশি ইংলিশ স্কিল ডেভেলপ করুন। ফেসবুক, স্কাইপ, জি টক, মেসেঞ্জার ইত্যাদিতে বন্ধুদের সাথে ইংরেজিতে চ্যাট করুন। বিভিন্ন ইংলিশ মুভি/গান সাব টাইটেল/ লিরিক গুলা দেখুন…
আপনাকে ক্লায়েন্টকে বুঝাতে হবে কেন আপনি এই জবের জন্য বেস্ট, আপনি কি কি তাকে দিতে পারবেন, কেন আপনি অন্যদের তুলনায় আলাদা।

5. Freelancing ক্যারিয়ার এর জন্য কিছু কিছু কাজ করুন। যা আপনি portfolio হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন। হতে পারে আপনার ফ্রেন্ড এর জন্য, বা কোন গ্রুপের জন্য বা নিজের খুশির জন্য। বিভিন্ন গ্রুপ এ আপনার কাজ শেয়ার করুন। মেম্বারদের মতামত নিন।

6. এখন আপনি রেডি কাজ করার জন্য, এবার আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনি কোথায় কাজ করবেন?( oDesk, Freelancer, Elance, 99designs , Fiverr ) মার্কেট প্লেস সবগুলাই ভালো।

7. Freelance সাইট গুলোতে আপনার প্রফাইল ১০০% করুন। মনে রাখবেন আপনার প্রোফাইলটাই সব।
বিভিন্ন এক্সাম দিন। অন্যদের প্রোফাইল ঘুরে দেখুন। এতে আপনি ধারনা পাবেন আপনার প্রোফাইলটা কিভাবে সাজাবেন।

8. অনেক সাধনার সাথে বিড করতে থাকুন “ কাজ পাওয়া এত সহজ না, কাজ না পেলে হতাশ হবেন না না না না না না এবং না। আজ না হলে কাল, কাল না হলে কোন এক দিন কাজ পাবেন। একবার কাজ পেলে আর পেছনে তাকাতে হবে না ”

ভুলে এবং চুলে হাল ছাড়বেন না। যারা সফল হয়েছে তাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন। তাদের চরম কঠিন দিন গুলো জানুন, আপনার সাথে মিলিয়ে দেখুন। ক্লায়েন্ট আপনার অপেক্ষায়।
আপনি যদি Freelancing ক্যারিয়ার গঠন করতে আগ্রহী হন, তাহলে আপনাকে কিছু কাজ করতে হবে।

1. প্রথমে আপনাকে ঠিক করতে হবে যে, ওয়েবের বিশাল জগতে আপনার পছন্দের Part কোন টি? (Graphics Design, Web Design, Web Developing, SEO, E-mail Marketing , WordPress etc.)

2. এবার পছন্দের বিষয়ে Learning করতে থাকুন ।( “Learning before earning” আপনি যদি কিছুই বা না জানেন তাহলে কিভাবে কাজ করবেন?) বিভিন্ন সাইট এবং ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখুন। কোথাও আটকে গেলে গুগল.com ।

3. ৩ থেকে ৪ মাস আপনার পছন্দের বিষয়ে এক টানা কাজ করুন। “মনে রাখবেন আজকে না হলে আগামি দিন হবে ইনশাআল্লাহ”

4. পাশাপাশি ইংলিশ স্কিল ডেভেলপ করুন। ফেসবুক, স্কাইপ, জি টক, মেসেঞ্জার ইত্যাদিতে বন্ধুদের সাথে ইংরেজিতে চ্যাট করুন। বিভিন্ন ইংলিশ মুভি/গান সাব টাইটেল/ লিরিক গুলা দেখুন…
আপনাকে ক্লায়েন্টকে বুঝাতে হবে কেন আপনি এই জবের জন্য বেস্ট, আপনি কি কি তাকে দিতে পারবেন, কেন আপনি অন্যদের তুলনায় আলাদা।

5. Freelancing ক্যারিয়ার এর জন্য কিছু কিছু কাজ করুন। যা আপনি portfolio হিসাবে ব্যবহার করতে পারবেন। হতে পারে আপনার ফ্রেন্ড এর জন্য, বা কোন গ্রুপের জন্য বা নিজের খুশির জন্য। বিভিন্ন গ্রুপ এ আপনার কাজ শেয়ার করুন। মেম্বারদের মতামত নিন।

6. এখন আপনি রেডি কাজ করার জন্য, এবার আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনি কোথায় কাজ করবেন?( oDesk, Freelancer, Elance, 99designs , Fiverr ) মার্কেট প্লেস সবগুলাই ভালো।

7. Freelance সাইট গুলোতে আপনার প্রফাইল ১০০% করুন। মনে রাখবেন আপনার প্রোফাইলটাই সব।
বিভিন্ন এক্সাম দিন। অন্যদের প্রোফাইল ঘুরে দেখুন। এতে আপনি ধারনা পাবেন আপনার প্রোফাইলটা কিভাবে সাজাবেন।

8. অনেক সাধনার সাথে বিড করতে থাকুন “ কাজ পাওয়া এত সহজ না, কাজ না পেলে হতাশ হবেন না না না না না না এবং না। আজ না হলে কাল, কাল না হলে কোন এক দিন কাজ পাবেন। একবার কাজ পেলে আর পেছনে তাকাতে হবে না ”

ভুলে এবং চুলে হাল ছাড়বেন না। যারা সফল হয়েছে তাদের সাথে যোগাযোগ রাখুন। তাদের চরম কঠিন দিন গুলো জানুন, আপনার সাথে মিলিয়ে দেখুন। ক্লায়েন্ট আপনার অপেক্ষায়।

Main Post By: Abdul Mannan Asif

Exit mobile version